টাইগার কোচ হতে দেশে আসছেন ভেট্টরি-লেঙ্গেভেন্ডল্ট

টাইগার কোচ হতে দেশে আসছেন ভেট্টরি-লেঙ্গেভেন্ডল্ট
টাইগার কোচ হতে দেশে আসছেন ভেট্টরি-লেঙ্গেভেন্ডল্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক ।।

বিশ্বকাপের পর কোর্টনি ওয়ালশ চলে যাওয়ায় বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচের পদ ফাঁকা হয়। তাদের কোচিং পার্ফরমেন্সে খুশি নন বিসিবি। তাই ওয়ালশের সঙ্গে ভারতীয় স্পিন কোচ সুনীল যোশিকেও বিদায় দেয়া হয়েছে চুক্তির মেয়াদ শেষের আগেই। টাইগারদের স্পিন বোলিং কোচের পদটাও তাই আপাতত ফাঁকা। রুবেল, মোস্তাফিজদের জন্য নতুন পেস বোলিং কোচ হয়ে আসছেন দক্ষিণ আফ্রিকার ডানহাতি সাবেক পেসার ৪৪ বছর বয়সী চার্ল লেঙ্গেভেল্ডট। আর পার্টটাইম স্পিন কোচ হিসেবে আসবেন নিউজিল্যান্ডের সাবেক দলপতি ড্যানিয়েল ভেট্টরি।

শনিবার (২৭ জুলাই) বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভা শেষে এমনটি নিশ্চিত করেছেন বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। চলতি বছরের নভেম্বর থেকে ২০২০ বিশ্বকাপ পর্যন্ত তারা থাকবেন জাতীয় দলের দায়িত্বে।

কদিন আগে ক্রিকেট পাড়ায় গুঞ্জন উঠেছিল, পাকিস্তানের সাবেক পেসার আকিব জাভেদ এবং সাবেক অধিনায়ক, কোচ ওয়াকার ইউনুস টাইগারদের বোলিং কোচ হতে চেয়ে আবেদন করেছিলেন। প্রোটিয়া পেসার ডোনাল্ডের এজেন্টও নাকি ই-মেইলে তাদের আগ্রহের কথা জানিয়েছিলেন।

সবশেষে বিসিবি বেছে নেয় লেঙ্গেভেল্ডটকে। ভেট্টোরি ১০০ দিনের জন্য কাজ করবেন টাইগার স্পিনারদের সঙ্গে।

দক্ষিণ আফ্রিকার জার্সি গায়ে ডানহাতি সাবেক পেসার লেঙ্গেভেল্ডট খেলেছেন মাত্র ৭২টি ওয়ানডে। সাদা পোশাকে খেলেছেন ৬টি টেস্ট। প্রোটিয়াদের হয়ে ৯টি টি-টোয়েন্টিও খেলেছেন তিনি। টেস্টে ১৬, ওয়ানডেতে ১০০ আর টি-টোয়েন্টিতে তার নামের পাশে জমেছে ১৭টি উইকেট। প্রথমশ্রেণির ১০৪ ম্যাচে নিয়েছেন ৩৩৪ উইকেট আর লিস্ট এ ক্যারিয়ারে ২৩৩ ম্যাচে নিয়েছেন ৩৫৯ উইকেট। সবধরনের টি-টোয়েন্টিতে ১১০ ম্যাচ খেলে তিনি নিয়েছেন ১৩৮ উইকেট। টাইগারদের জন্য কতটা সুফল বয়ে আনবে এটা কেবল দেখার অপেক্ষায় ক্রিকেট বোদ্ধারা

২০০৫ সালে টেস্টে অভিষেক হলেও পরের বছর থেকে আর খেলেননি। ২০০১ সালে লেঙ্গেভেল্ডটের ওয়ানডেতে অভিষেক হয়। ২০১০ সালে অবসরে যান তিনি।

আইপিএলে রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুতে খেলা এই প্রোটিয়া পেসার আফগানিস্তানের কোচ ছিলেন। এছাড়া, বিভিন্ন মেয়াদে নিজ দেশ দক্ষিণ আফ্রিকার বোলিং কোচ হিসেবে কাজ করেছেন তিনি।

এদিকে ডানিয়াল ভেটরির ক্রিকেট ক্যারিয়ার সম্পর্কে কারো অজানা নয়। ঝলমেল ক্রিকেট ক্যারিয়ারে ১১৩ টেস্টে নিয়েছেন ৩৬২ উইকেট। ২৯৫ ওয়ানডেতে ৩০৫ আর ৩৪ টি টি-২০ ম্যাচে পেয়েছন ৩৮ উইকেট।