হলি আর্টিজান মামলার রায় আন্তর্জাতিক মিডিয়ায়

হলি আর্টিজান মামলার রায় আন্তর্জাতিক মিডিয়ায়

পোস্টকার্ড ডেস্ক ।।

আলোচিত হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলার রায়ের খবর আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো ফলাও করে প্রকাশ করেছে। তিন বছর আগের ওই হত্যাযজ্ঞের ঘটনায় করা মামলার রায়ে ৮ আসামির মধ্যে ৭ জনের মৃত্যুদণ্ড ও ১ জনকে খালাস দিয়েছেন আদালত। ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনাল এই মামলার রায় ঘোষণা করেন।

বিবিসি, আল-জাজিরা, দ্য ওয়াশিংটন পোস্ট, রয়টার্সসহ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের খবরে ওঠে আসে নৃশংসতম এই জঙ্গি হামলার নানা দিক।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি হলি আর্টিসানের রায়ের খবরটি তাদের প্রধান সংবাদ হিসেবে ‘২০১৬ সালের ক্যাফে হামলায় ইসলামী চরমপন্থীদের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে বাংলাদেশ’ শিরোনামে প্রকাশ করেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে ২০১৬ সালে বেশিরভাগ বিদেশিসহ ২২ জন হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সাত জনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে বাংলাদেশ ।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরারও ‘হলি আর্টিজান ক্যাফেতে হামলা, সাত জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে ঢাকার আদালত’ শিরোনামে তাদের প্রধান খবর প্রকাশ করেছে। তারা বলছে, ‘রাজধানী শহরের একটি জনপ্রিয় ক্যাফেতে হামলার ঘটনায় যুগান্তকারী রায় দিয়েছে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতির প্রমাণ দিয়েছে বাংলাদেশ।’

মার্কিন সংবাদ সংস্থা এপি ‘ক্যাফে হামলায় সাত জঙ্গিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে বাংলাদেশ’ শিরোনামে হলি আর্টিজান মামলার রায়ের খবর প্রকাশ করেছে। তারা বলছে, বাংলাদেশের একটি বিশেষ ট্রাইব্যুনাল ২০১৬ সালের ঢাকায় বোমা হামলার ঘটনায় নিষিদ্ধগোষিত একটি জঙ্গি সংগঠনের সাত সদস্যকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে।

ব্রিটিশ সংবাদ সংস্থা রয়টার্স শিরোনাম করেছে, ২০১৬ সালের ক্যাফে হামলার দায়ে সাত জনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে বাংলাদেশ। তারা বলছে, দক্ষিণ এশিয়ার দেশটির অন্যতম ভয়াবহ এই হামলায় বেশিরভাগ বিদেশিসহ অনেক মানুষ প্রাণ হারিয়েছিলেন। আদালতে এক আসামি ‘আল্লাহু আকবর’ বলার ঘটনাটিও তারা উল্লেখ করেছে প্রতিবেদনে।

আরেক ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ানও ‘২০১৬ সালের ক্যাফে হামলায় বাংলাদেশে সাতজনের মৃত্যুদণ্ড’ শিরোনামে রায়ের খবর প্রকাশ করেছে। জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়েচেভেলেও, ‘বাংলাদেশ : ক্যাফেতে হামলার ঘটনায় সাত ইসলামি জঙ্গিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করেছে। ঢাকার সন্ত্রাস বিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনাল এই রায় দেন।

দ্য ওয়াশিংটন পোস্টের খবরে বলা হয়, ঢাকার ক্যাফেতে সন্ত্রাসী হামলায় যুক্ত থাকার অপরাধে ৭ জঙ্গিকে মৃত্যদণ্ড দেওয়া হয়েছে। ২০১৬ সালের ১ জুলাই চালানো সেই হামলায় নিহতদের ১৭ জনই ছিলেন জাপান, ইতালি ও ভারতের নাগরিক। ইসলামিক স্টেট বা আইএস সে সময় এই হামলার দায়িত্ব স্বীকার করে বিবৃতি দিলেও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, হামলাকারীরা আইএস নয় বরং দেশটির অভ্যন্তরীণ জঙ্গি সংগঠনের সদস্য।

ভারতের প্রথম সারির জাতীয় দৈনিক টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক অনলাইন প্রতিবেদনে হলি আর্টিজান মামলার রায়ের খবর প্রকাশ করেছে। ‘২০১৬ সালের ক্যাফে হামলায় সাতজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে বাংলাদেশ’ শিরোনামে রায়ের খবর জানিয়ে তারা বলছে, হামলার সঙ্গে জড়িত এসব ব্যক্তির বিরুদ্ধে সমস্ত অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে।

ব্রিটিশ দৈনিক ইন্ডিপেন্ডেন্ট শিরোনাম করেছে, ‘২১০৬ সালে ঢাকায় বিদেশিদের ওপর সন্ত্রাসী হামলা মামলার রায়ে সাতজন ইসলামী চরমপন্থীর মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে বাংলাদেশ।’ মার্কিন সংবাদমাধ্যম ইউএস নিউজ শিরোনাম করেছে, ‘২১০৬ সালের ক্যাফে হামলার দায়ে সাতজনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে বাংলাদেশ।’

চীনের প্রভাবশালী গণমাধ্যম সিনহুয়া এক প্রতিবেদনে লিখেছে,‘২০১৬ সালের ক্যাফে হামলায় সাতজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে বাংলাদেশ।’

ভারতীয় গণমাধ্যম জি নিউজ শিরোনাম করেছে,  ‘২০১৬ সালে হলি আর্টিজন ক্যাফেতে সন্ত্রাসী হামলা মামলা : বাংলাদেশের আদালতে সাতজনকে মৃত্যুদণ্ড ও একজনকে খালাস।

এছাড়াও ভারতীয় প্রায় সব সংবাদমাধ্যম, মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক কিছু গণমাধ্যম ও সংবাদ পর্যবেক্ষণ সংস্থা, ইউরোপ আর আমেরিকার গণমাধ্যম, পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ছাঁড়াও অসংখ্য গণমাধ্যমে বুধবারের হলি আর্টিজান মামলার রায়ের খবর প্রকাশিত হয়েছে।