টরন্টো যাচ্ছে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’

বিনোদন ডেস্ক ।।

টরন্টো যাচ্ছে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’
টরন্টো যাচ্ছে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’

টরন্টো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে দেখানো হবে চলচ্চিত্র ‘মেড ইন বাংলাদেশ’। রুবাইয়াত হোসেন নির্মিত সিনেমাটি এই উৎসবে অংশগ্রহণ করছে কনটেম্পোরারি ওয়ার্ল্ড সিনেমা বিভাগে। উৎসব হবে আগামী ৫ থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর। টরন্টো চলচ্চিত্র উৎসবে দেখানোর মধ্য দিয়ে ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হবে সিনেমাটির। প্রথম সিনেমা ‘মেহেরজান’ এবং দ্বিতীয় সিনেমা ‘আন্ডার কনস্ট্রাকশন’-এর পর এটি রুবাইয়াত হোসেনের তৃতীয় সিনেমা। বাংলাদেশে নারীর ক্ষমতায়নে ও আত্মনির্ভরশীলতা অর্জনে পোশাকশিল্পের ভূমিকা আছে। তার আলোকে দৃঢ়চেতা নারী পোশাকশ্রমিকদের সংগ্রাম ও সাফল্যের গল্প বলা হয়েছে মেড ইন বাংলাদেশ সিনেমায়। এতে অভিনয় করেছেন রিকিতা নন্দিনী, দীপান্বিতা মার্টিন, মুস্তাফা মনোয়ার, শতাব্দী ওয়াদুদ, জয়রাজ, মোমেনা চৌধুরী, ওয়াহিদা মল্লিক জলি, সামিনা লুৎফা প্রমুখ। দুটি অতিথি চরিত্রে অভিনয় করেছেন মিতা চৌধুরী ও ভারতের শাহানা গোস্বামী। সিনেমাটি প্রযোজনা করেছে ফ্রান্স, ডেনমার্ক, পর্তুগাল ও বাংলাদেশ। সিনেমাটি পেয়েছে ফ্রান্স সরকারের সিএনসি ফান্ড, নরওয়ে সরকারের দেওয়া সোরফন্ড প্লাস, ইউরোপীয় ইউনিয়নের ইউরিমাজ ফান্ড আর ডেনমার্কের ডেনিশ ফিল্ম ইনস্টিটিউট ফান্ড। এছাড়া লোকার্নো চলচ্চিত্র উৎসবের ‘ওপেন ডোরস’-এ অংশ নিয়ে চিত্রনাট্যের জন্য জিতে নিয়েছে আর্টে ইন্টারন্যাশনাল পুরস্কার।

সুস্থ হয়ে উঠছেন সৌমিত্র

ভারতীয় বাংলা সিনেমার কিংবদন্তি অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় গত বুধবার শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। তার চিকিৎসার জন্য সাত সদস্যের এক মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছিল। বর্ষীয়ান এই অভিনেতার শারীরিক পরিস্থিতি নিয়ে চিন্তিত ছিলেন তার ভক্তরা। ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর, গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে চিকিৎসকরা জানান, ভালো আছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। শ্বাসকষ্টের সমস্যা কমেছে। তুলনামূলকভাবে কম অক্সিজেন প্রয়োজন পড়ছে। তবে আইসিইউ থেকে ছাড়া পাচ্ছেন না সৌমিত্র। আরও একদিন তাকে চিকিৎসকদের কড়া নজরে থাকতে হবে। সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের বয়স ৮৪ বছর। শ্বাসকষ্টের পাশাপাশি বার্ধক্যজনিত রোগও রয়েছে তার। ১৯৫৯ সালে সত্যজিৎ রায়ের ‘অপুর সংসার’-এর মধ্য দিয়ে অভিনয়ে নাম লেখান সৌমিত্র। সেই থেকে এখন পর্যন্ত তিনি অভিনয় চালিয়ে যাচ্ছেন বিরতি ছাড়াই।

প্রথম ভিডিওতে আলিয়ার বাজিমাত

জীবনের প্রথম মিউজিক ভিডিও। সেটি মুক্তি পেতেই টপ টেনের শীর্ষে চলে এসেছে আলিয়া ভাটের ‘প্রাডা’। গায়িকা হিসেবে আগেই বলিউডে আত্মপ্রকাশ করেছেন অভিনেত্রী আলিয়া ভাট। এবার প্রথম মিউজিক ভিডিও প্রকাশ করেছেন তিনি। সবে বয়স ২৬। আর তাতেই মুকুটে একের পর এক পালক। স্টাইল স্টেটমেন্ট থেকে অভিনয়Ñ সবকিছুতেই দর্শককে মাত করার পর এবার মিউজিক ভিডিও। ‘দ্য দূরদর্শন’ নামের ব্যান্ডের সঙ্গে গানের অ্যালবাম তৈরি করেছেন আলিয়া। ব্যান্ডের সদস্যরা হলেন ওঙ্কার সিং ও গৌতম শর্মা।

এর আগে ‘ল্যাম্বরগিনি’ নামের গানে বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছিল এই ব্যান্ড। এরই মধ্যে ‘প্রাডা’ গানটি গাওয়াসহ পারফরম্যান্সের মাধ্যমে তাক লাগিয়েছেন আলিয়া। মাত্র দুই দিনে এক কোটিরও বেশি দর্শক উপভোগ করেছেন গানটি। আলিয়া বলেন, এত অল্প সময়ে এতটা সাড়া পাব ভাবিনি। সবার প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা। আর আমার পুরো ব্যান্ডকে ধন্যবাদ। কারণ, তাদের সহযোগিতা না থাকলে এটা সম্ভব ছিল না।

পেরির বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ

জনপ্রিয় মার্কিন গায়িকা কেটি পেরির বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ আনলেন মডেল জোশ ক্লস। তার অভিযোগ, ‘ডার্ক হর্স’-এর গায়িকা তার অন্তর্বাস টেনে নামিয়ে দেন। উদ্দেশ্য ছিল কেটির বন্ধুমহল ও সমাগত সবার সামনে তাকে নগ্ন করা।এ ঘটনায় তিনি যে গায়িকার ওপর ক্ষুব্ধ হয়েছেন, প্রকাশ্যে যৌন নিগ্রহের অভিযোগেই সে ইঙ্গিত মেলে। জোশ বলেন, ক্ষমতায় থাকা মেয়েরা কতটা জঘন্য হতে পারে, এটা তার প্রমাণ। ক্যাথরিন এলিজাবেথ হাডসন ওরফে কেটি কিন্তু মার্কিন মডেলের আনা যৌন হেনস্তার অভিযোগ প্রসঙ্গে এখনো পর্যন্ত নীরবই থেকেছেন। তবে এমন অভিযোগে কেটি পেরিকে নিয়ে হয়েছে তুমুল সমালোচনা। এর আগেও অশ্লীল কা- বহুবার ঘটিয়েছেন তিনি।

কিন্তু এবার একজন মডেলের সঙ্গে তার এমন আচরণ কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না নেটিজেনরা। আর সে কারণেই তারা কড়া সমালোচনা করেছেন কেটির।

সবচেয়ে জনপ্রিয় সানি লিওন

বর্তমানে বলিউডের সিনেমায় অভিনয় করেই সময় পার করছেন সানি লিওন। এক সময়ের পর্নো জগতের এই তারকা হিন্দি ছবির দুনিয়ায় পা রাখার পর থেকেই বেশ আলোচিত। আর তিনি যে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় তা আবার প্রমাণ দিলেন। সম্প্রতি প্রকাশ্যে এলো গুগল ইন্ডিয়ার সার্চ রেজাল্টের তালিকা। আর এ তালিকাতেই নজরে এলো সানি লিওন এখনো গুগল সার্চে এক নম্বরে। ভারতের বেশিরভাগ মানুষই গুগলে টাইপ করেছেন সানি লিওনের নাম। আর সেখান থেকেই গুগল সার্চ ইন্ডিয়ার একেবারে প্রথম সারিতে উঠে এলেন সানি লিওন। গুগলের তরফে জানানো হয়, দেশজুড়ে সবচেয়ে বেশি সার্চ হয়েছে সানি লিওনের ভিডিও ও সানি লিওনের বায়োগ্রাফি। এমনকি সানি লিওনের ছবি ডাউনলোডের সংখ্যাও অনেক বেশি। গুগল আরও জানিয়েছে, ভারতে সানি লিওনের পর সবচেয়ে বেশি সার্চ হয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নাম। মোদির স্পিচ এ ব্যাপারে সবচেয়ে বেশি এগিয়ে। মোদির পরপরই রয়েছেন শাহরুখ খান ও সালমান খান। এই দুই খানের ছবি ও সিনেমাই সবচেয়ে বেশি সার্চ হয়েছে গুগলে।