ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে স্মারক ডাক টিকিট অবমুক্ত করলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী

ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে স্মারক ডাক টিকিট অবমুক্ত করলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী
ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে স্মারক ডাক টিকিট অবমুক্ত করলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী

পোস্টকার্ড ডেস্ক ।। 

ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সোমবার (৪ জানুয়ারি) ঢাকায় ডাকভবনে ডাক অধিদপ্তরে উদ্যোগে স্মারক ডাকটিকিট-উদ্বোধনী খাম অবমুক্ত ও ডাটা কার্ড প্রকাশ করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। এ সময় তিনি বিশেষ সিলমোহর ব্যবহার করেন।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, ১৯৪৮ সালের ৪ জানুয়ারি ছাত্রলীগ প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যে বীজ বপন করেছিলেন তা থেকেই বাংলাদেশের জন্ম হয়েছে। ছাত্রলীগ প্রতিষ্ঠার পর থেকেই ভাষার অধিকার, শিক্ষার অধিকার, দুঃশাসনের বিরুদ্ধে গণঅভ্যুত্থান, সর্বোপরি স্বাধীনতা ও স্বাধিকার আন্দোলনের সবচেয়ে সফল ও সাহসী পথযাত্রী বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। এমনকি স্বাধীনতা উত্তরকালে গণতান্ত্রিক আন্দোলনে ছাত্রলীগ অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে।-বাংলানিউজ

ষাটের দশকে উত্তাল আন্দোলনের দিনগুলোতে রাজপথে ছাত্রলীগের লড়াকু সৈনিক ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের নেতা হিসেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের মেধাবী ছাত্র বঙ্গবন্ধু বাংলা ভাষার মর্যাদা প্রতিষ্ঠায় রাজপথে ছিলেন সদা সোচ্চার। ভাষা আন্দোলন, শিক্ষা আন্দোলন, ছয় দফা, আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা, গণঅভ্যুত্থান, সত্তরের নির্বাচন ও একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধের পরতে পরতে ছাত্রলীগের ভূমিকা ছিল প্রণিধানযোগ্য।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারণ করে, অশুভ শক্তিকে পেছনে ফেলে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে সমুন্নত রেখে দেশগড়ার প্রত্যয়ে এগিয়ে যাচ্ছে।

অনুষ্ঠানে ডাক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. সিরাজ উদ্দিন, টেলিযোগাযোগ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মহসীনুল আলম ও ডাক অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক হারুনুর রশিদ উপস্থিত ছিলেন।