চট্টগ্রামে শুরু হলো প্রথম অনলাইন বাংলা বইমেলা, অ্যাপস ও সার্ভার থেকে সংগ্রহ করা যাবে বই

চট্টগ্রামে শুরু হলো প্রথম অনলাইন বাংলা বইমেলা, অ্যাপস ও সার্ভার থেকে সংগ্রহ করা যাবে বই
চট্টগ্রামে শুরু হলো প্রথম অনলাইন বাংলা বইমেলা, অ্যাপস ও সার্ভার থেকে সংগ্রহ করা যাবে বই

পোস্টকার্ড ডেস্ক ।। 

প্রাণঘাতী মহামারী করোনার মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চট্টগ্রামে দেশের প্রথম অনলাইন বাংলা বইমেলা শুরু হয়েছে। মহান বিজয়ের মাসে বিশ্বের লেখক-পাঠক-প্রকাশকের মধ্যে মেলবন্ধন ঘটানোর লক্ষ্যে মাসব্যাপী এ অনলাইন বইমেলা উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম একাডেমির চেয়ারম্যান, প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. অনুপম সেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, চট্টগ্রাম নানা ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে। অনলাইন বাংলা বইমেলার সূচনাও হলো প্রথম চট্টগ্রাম থেকে। মহা জ্ঞানের এ বইমেলা দেশের একটি অসাধারণ ঘটনা। এ বইমেলা বিশ্বে নতুন একটি ধারা সৃষ্টি করেছে।

আমাজনের ব্যবসার উদাহরণ টেনে তিনি বলেন, তারা প্রথম বই বিক্রি দিয়েই অনলাইনে ব্যবসা শুরু করে। এখন সব জিনিসই বিকিকিনি করছে তারা। বিশ্ব আজ প্রযুক্তির মধ্য দিয়ে পরিচালিত হচ্ছে। এখন অনলাইনে পত্র-পত্রিকা, সাংবাদিকতা, বইপাঠ, জিনিস ক্রয়-বিক্রয় সব কিছু চলছে। তথ্যপ্রযুক্তি এ যুগে অনলাইনে বইমেলার আয়োজন নতুন একটি সংযোজন। সমকাল ধারণ করে উদ্যোক্তারা যে বইমেলার আয়োজন করেছে তা অসাধারণ। আসলে বইয়ের কোন বিকল্প নেই। বই মানুষকে আনন্দ দেয়, জ্ঞানী করে, বুদ্ধিকে শাণিত করে। জীবনকে সুন্দরভাবে পরিচালিত করে। যে ব্যক্তি সাহিত্যকে জীবনের সাথে একাত্ম করেছে সে অমূল্য আনন্দের আস্বাদ পেয়েছে। নিজের অস্তিত্বকে বিকশিত করতে পেরেছে। জগতকে বোঝার, ঈশ্বরকে জানার সমার্থক হিসেবে বই-ই পথপ্রদর্শকের ভূমিকা পালন করে। ৫০০ বছর পূর্বের বই এখনও আমাদের আনন্দ দেয়, শিক্ষা দেয়। ফেরদৌসী, শেখ সাদীসহ প্রচীনযুগের লেখকদের বই পড়ে এখনও আমরা আনন্দ পাই। ইতিহাস জানতে পারি। তিনি চট্টগ্রাম একাডেমি প্রসঙ্গে বলেন, এটি বাংলা ভাষা-ভাষী বাঙালিদের কাছে একটি অসাধারণ প্রতিষ্ঠান হিসেবে সমাদৃত হবে।

মঙ্গলবার চট্টগ্রাম একাডেমির ফয়েজ-নুরনাহার মিলনায়তনে অনলাইন বইমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অনলাইন বাংলা বইমেলা পরিষদের আহ্বায়ক শিশুসাহিত্যিক-সাংবাদিক রাশেদ রউফ। সূচনা বক্তব্য দেন বইমেলা পরিষদের মহাসচিব নেছার আহমদ। বক্তব্য দেন প্রফেসর রীতা দত্ত, চট্টগ্রাম একাডেমির মহাপরিচালক শিশুসাহিত্যিক অরুণ শীল। সঞ্চালক ছিলেন আবৃত্তিশিল্পী আয়েশা হক শিমু।

শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন শিশুসাহিত্যিক বিপুল বড়ুয়া, উৎপলকান্তি বড়ুয়া, আজিজ রাহমান, শামসুদ্দীন শিশির, আবুল কালাম বেলাল, অমিত বড়ুয়া, শাকিল আহমদ, মিজানুর রহমান শামীম, মৃণালিনী চক্রবর্তী, শাহ আল নিপু, কাঞ্চনা চক্রবর্তী, আরিফ রায়হান, আলী প্রয়াস, মো. রেজাউল করিম, ইসমাইল জসীম, গোফরান উদ্দীন টিটু, বাসুদেব খাস্তগীর, সৈয়দা সেলিমা আক্তার, ফারজানা রহমান শিমু, বদরুন নেসা সাজু, সুপ্রতিম বড়ুয়া, মিলন বনিক, এস এম আবদুল আজিজ, এম কামাল উদ্দিন, ইঞ্জিনিয়ার আবদুল্লাহ মামুন, সালাম সৌরভ, রেজাউল করিম স্বপন, এম. মোখলেসুর রহমান, জসীম উদ্দিন খান, লিটন কুমার চৌধুরী, তসলিম খাঁ, ইমরান প্রমুখ।

অনলাইন বইমেলা আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে। প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চট্টগ্রাম একাডেমির ফয়েজ-নুরনাহার মিলনায়তনে প্রধান সার্ভার কেন্দ্র উন্মুক্ত থাকবে। আগ্রহীরা পরিদর্শন করতে পারবেন। বই থেকে আপনার পছন্দের বইটি ২০% কমিশনে কিনতে পারবেন। এ ছাড়া নধহমষধনড়রসবষধ.পড়স অ্যাপসে ক্লিক করে প্রদত্ত নিয়ম অনুযায়ী যে কেউ বই সংগ্রহ করতে পারবেন।

আজকের অনুষ্ঠান : অনলাইন বাংলা বইমেলায় আজকের আলোচনা বিষয় ‘ই-কমার্স-এ বই বিপণন’। এতে মূল আলোচক থাকবেন কবি ও প্রাবন্ধিক অভীক ওসমান।