অ্যাশেজ সিরিজের প্রথম টেস্টে স্মিথের শতকে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ২৮৪

অ্যাশেজ সিরিজের প্রথম টেস্টে স্মিথের শতকে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ২৮৪
অ্যাশেজ সিরিজের প্রথম টেস্টে স্মিথের শতকে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ২৮৪
অ্যাশেজের প্রথম দিনে হোচট খেয়েছে অস্ট্রেলিয়া। তবে প্রায় দেড় বছর পর সাদা পোশাকের ক্রিকেটে ফিরেই শত বছরের রেকর্ড ভেঙে নতুন করে লিখেয়েছেন অজি ব্যাটসম্যান স্টিভ স্মিথ। তার শতকে সম্মানজনক সংগ্রহ পায় দল।
 
বার্মিংহামের এজিবাস্টনে অ্যাশেজ সিরিজের প্রথম টেস্টে টস জিতে আগে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন টিম পেইন। গত বছর কেপটাউন টেস্টে কেলেঙ্কারির জন্য নিষিদ্ধ হওয়া ডেভিড ওয়ার্নার ও ক্যামেরন বেনক্রফট নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস উদ্বোধন করতে নামেন। তবে ব্যর্থ হয়েছেন তারা।
 
সফরকারীদের টপ অর্ডার ও মিডল অর্ডারে সব ব্যাটসম্যানই ছিলেন ব্যর্থ শুধু স্মিথ ছাড়া। মর্যাদার লড়াইয়ে ফিরেই সেঞ্চুরি করে দলকে টেনে তুলেছেন খাদের কিনারা থেকে। ১৪৪ রানের ইনিংস খেলার পথে ১১৭ বছর আগের রেকর্ড ভেঙেছেন সাবেক অজি অধিনায়ক।
 
২১৮ বল দেখেশুনে খেলে ২১৯তম বলে ব্রডের শিকারে পরিণত হওয়া স্মিথের ব্যাট থেকে এসেছে ১৪৪ রান। শিল্পকর্মের মত ইনিংসে ছিল ১৬টি চার, ২টি ছক্কা। এর আগে অ্যাশেজের প্রথম দিনে এত রান সংগ্রহ করতে পারেননি কোনো ব্যাটসম্যান।
 
অ্যাশেজের প্রথম দিনের সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডটা ১১৭ বছর ধরে ইংলিশ ব্যাটসম্যান জনি টিলডেসলির দখলে ছিল। ১৯০২ সালে তিনি খেলেছিলেন ১৩৮ রানের ইনিংস।
 
সতীর্থদের ব্যর্থতার দিনে টেলএন্ডারদের নিয়ে দুর্দান্ত লড়াই করেন স্মিথ। নবম উইকেটে পেসার পিটল সিডলকে সাথে নিয়ে ৮৮ রানের জুটি গড়েন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান। শেষ উইকেতে স্পিনার নাথান লায়নকে নিয়ে গড়েন ৭৪ রানের জুটি।
 
প্রসঙ্গত, প্রথম দিনে ২৮৪ রানে অলআউট হয়েছে অস্ট্রেলিয়া। স্বাগতিকদের হয়ে ৫টি উইকেট শিকার করেন অভিজ্ঞ পেসার স্টুয়ার্ট ব্রড। এদিন ২ ওভার ব্যাটিং করেছে ইংল্যান্ড। দিন শেষে ইংলিশদের সংগ্রহ বিনা উইকেটে ১০ রান।